নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রমজীবি মানুষের পাশে আমরা, নামাপাড়া, মধ্যবাড্ডা, ঢাকা

নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রমজীবি মানুষের পাশে আমরা, নামাপাড়া, মধ্যবাড্ডা, ঢাকা

ফজলু মিয়ার একটি চায়ের দোকান ছিল,তিনি থাকেন মধ্য বাড্ডার নামাপাড়ায়।সব খরচাপাতি দিয়ে দৈনিক যা আয় হতো, তার চারজনের সংসার চলে যেত। করনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারনে দোকান বন্ধ অনেকদিন।ঘরে যা কিছু জমা ছিল সব শেষ। নিজে কি খাবেন আর সন্তানদেরই মুখে কি তুলে দিবেন, জানেন না ফজলু মিয়া। একই গল্প হোটেল কর্মচারী রফিক আর রিক্সা চালক দুলালের। তাদের মতো ৪০৭ জন শ্রমজীবি মানুষের জন্য সামান্য কিছু উপহার নিয়ে আজকে আমরা গিয়েছিলাম কেকে ফাউন্ডেশনের তরফ থেকে।৭ দিন ভালভাবে চলে যাওয়ার জন্য কিছু রেশন সামগ্রী। বিপদের সময়ে পাশে থাকার একটি প্রয়াশমাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published.